রাঙ্গামাটিতে বাবা-ছেলেসহ ৩ জনকে গুলি করে হত্যা, শিশুসহ আহত ৫

104
 নিজস্ব প্রতিবেদক |  বুধবার, জুন ২২, ২০২২ |  ৫:৪৫ অপরাহ্ণ
রাঙ্গামাটিতে বাবা-ছেলেসহ ৩ জনকে গুলি করে হত্যা, শিশুসহ আহত ৫
       
Advertisement

রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলায় বাবা-ছেলেসহ তিন জনকে গুলি করে হত্যার খবর পাওয়া গেছে। দুর্গম বড়থলি ইউনিয়নে নতুন সশস্ত্র সংগঠন ‘কুকিচীন পার্টি’ এ হামলা চালিয়েছে বলে ওই এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির ইউনিয়ন সভাপতি আতুমং মারমা নিশ্চিত করেছেন। একই দাবি করেছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি মেম্বার ওয়েইবার ত্রিপুরা। ঠিক কী কারণে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে পারেননি তারা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সন্ধ্যা ৭টার দিকে সাইজাম পাড়ায় একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী আসে। কিছু বুঝে উঠার আগেই পাড়াবাসীকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে তারা। আতঙ্কে লোকজন এদিক–সেদিক ছুটতে থাকে। এলোপাতাড়ি গুলির ঘটনায় তিনজন পাড়াবাসী নিহত এবং শিশুসহ পাঁচজন আহত হন।

Advertisement

নিহত ব্যক্তিরা হলেন- বৃষচন্দ্র ত্রিপুরা, সুভাষ ত্রিপুরা এবং ধনরা ত্রিপুরা। এদের মধ্যে সুভাষ এবং ধনরা সম্পর্কে বাবা-ছেলে বলে জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান আতুমং মারমা।

আতুমং মারমার ভাষ্য, ‘মঙ্গলবার (২১ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ‘কুকিচীন পার্টি’ নামের একটি নতুন সশস্ত্র সংগঠনের কর্মীরা বড়থলি ইউনিয়নের সাইজান নতুন পাড়ায় এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করলে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হন। বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। তবে ঘটনার ২২ ঘণ্টা পরও বুধবার (২২ জুন) বিকেল ৩টা পর্যন্ত কেউ ঘটনাস্থলে যাননি।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি মেম্বার ওয়েইবার ত্রিপুরাও ঘটনার জন্য কুকিচীন পার্টিকে দুষছেন। তিনি বলেন, নতুন সৃষ্ট ওই পাড়াতে মাত্র তিনটি পরিবারই বসবাস করতো। এলাকাটি খুবই দুর্গম।

বিলাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মিজানুর রহমান বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে জানতে পেরেছি বড়থলি ইউনিয়নে দুর্বৃত্তদের গুলিতে তিনজন মারা গেছেন। এ বিষয়ে পুলিশকে বিস্তারিত খোঁজখবর নিতে বলা হয়েছে। পাড়াটি দুর্গম হওয়ায় সঠিক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না।

এসসি

Advertisement

CTG NEWS