কক্সবাজার সৈকতে নিখোঁজ দুই পর্যটক, দুই দিন পর মরদেহ পাওয়া গেলো মহেশখালি চ্যানেলে! 

89
 নিজস্ব প্রতিবেদক |  রবিবার, মে ১৫, ২০২২ |  ৫:০৮ অপরাহ্ণ
কক্সবাজার সৈকতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ, দুই দিন পর মিললো মরদেহ
       
Advertisement

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হওয়া পর্যটক সাইদুল ইসলাম জহিরের (২৮) মরদেহ দুই দিন পর মহেশখালী চ্যানেল থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রবিবার (১৫ মে) দুপুর দেড়টার দিকে মহেশখালী চ্যানেলের শাপলাপুর ঘাট থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। ঘটনাস্থলে থাকা নিহতের ভাই জমির লাশ শনাক্ত করেন।

Advertisement

এর আগে, শুক্রবার দুপুরে পাঁচ বন্ধু কক্সবাজার ভ্রমণে এসে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে গোসল করতে নামেন। এ সময় নিখোঁজ হন জহির। তাকে খুঁজে না পেয়ে বন্ধুরা বিষয়টি ট্যুরিস্ট পুলিশ ও লাইফ গার্ড কর্মীদের জানানোর পর তার বন্ধু ও স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে তাকে খোঁজ করতে থাকেন। অবশেষে দুই দিন পর মহেশখালী থেকে লাশটি খুঁজে পায়। জহির চট্টগ্রামের লোহাগাড়া এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে।

মহেশখালী থানার ওসি আব্দুল হাই জানান, স্বজনদের কোনও অভিযোগ না থাকলে লাশ হস্তান্তর করা হবে। অন্যথায় ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

ঘটনার সময় সুগন্ধা পয়েন্টে দায়িত্বরত লাইফ গার্ড কর্মী মো. শুক্কুর জানিয়েছিলেন, শুক্রবার দুপুরে ভাটার সময় সাগরে বেশ স্রোত ছিল। এ সময় প্রচুর পর্যটক সাগরে গোসল করতে নামেন। তবে জহিরের ভেসে যাওয়ার ঘটনাটি কারও চোখে পড়েনি। ফলে উদ্ধার তৎপরতা চালানো যায়নি। বিকালে নিখোঁজের বিষয়টি তাদের জানানো হয়েছিল।

বন্ধু সাকিব জানান, তারা পাঁচ বন্ধু শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া থেকে কক্সবাজারে পৌঁছেন। এরপর সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে দুইটি কিটকট চেয়ার ভাড়া নেন। পরে সবাই সাগরে গোসল করতে নামেন।

খালাতো ভাই শামসুল জানান, জহির ও সে একসঙ্গে সাগরে নামেন। সাঁতার না জানায় সে কোমর পানিতে ছিল। এর ঘণ্টাখানেক পর থেকে তারা জহিরকে খুঁজে না পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশকে জানান।

কক্সবাজার সৈকতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ, দুই দিন পর মিললো মরদেহ

 

 

এমজে/

Advertisement

CTG NEWS