চুরিতে সেরা ৩ ভাই !

229
 নিজস্ব প্রতিবেদক: |  সোমবার, অক্টোবর ২৫, ২০২১ |  ৯:৫৮ অপরাহ্ণ
       
Advertisement

তিন ভাইয়ের একজন রিক্সাচালক, দুই ভাইকে নিয়ে প্রায় সময়ই রাতের বেলা রিক্সা নিয়ে চট্টগ্রাম নগরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরেন, বাসায় অন্ধকার দেখলে রিক্সা থেকে নেমে পাইপ বেয়ে ওপরে ওঠেন। জানালার গ্রীল বাকা করে ঘরের ভিতর ঢুকে সুকৌশলে মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি করে নিচে নেমে যায়। বাকীরা থাকে পাহারায়।

আজ ২৫ অক্টোবর, সোমবার এমন অভিনব কায়দায় চুরির কর্মকাণ্ডের কথা জানায় পুলিশ। ৩ ভাইয়ের সঙ্গে নারীসহ আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওই নারী তাদের একজনের স্ত্রী। অন্যজন হলো চক্রটির সহযোগী সদস্য মো. জাহাঙ্গীর (৩০)। চাঁদপুর তেগুরা গ্রামের মৃত মজু মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর পেশায় রিকশাচালক। আজ সোমবার তাঁদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানায় কোতোয়ালি পুলিশ।

Advertisement

পুলিশ জানায়, গত ১৩ অক্টোবর নগরের পুরাতন বিমান অফিসের সামনে থেকে আসামি ইব্রাহীমকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর ইব্রাহীমের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মামলার এক নাম্বার আসামি মো. মঈনুদ্দিন প্রকাশ মাইন উদ্দিন প্রকাশ মনির (৩২) কে গ্রেফতার হন। পরে মো. মঈনুদ্দিন জিজ্ঞাসাবাদে তার ভাইয়দের এমন অভিনব কায়দায় চুরির কর্মকাণ্ডের তথ্য ওঠে আসে। পুলিশ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তার ভাই মো. রহিম (৩০) ও মো. জাহাঙ্গীর (৩০) কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

কোতোয়ালি থানা সুত্র জানায়, ১১ অক্টোবর জামালখান ১/৭ এস.এস খালেদ রোডস্থ এবিসি মাহাবুব হিলস্ নামক ভবনের ৩য় তলার ফ্ল্যাট নং-এফ-২ থেকে আবরারা বেগম (৭০) এর বেডরুমের গ্রীল বাকা করে আলমারির ভিতরে নগদ ৩ লাখ টাকা, ৩১০০ ইউএস ডলার, ৩৫টি ডায়মন্ডের রিং, ৪ জোড়া ডায়মন্ডের কানের দুল, ৫টি ডায়মন্ড মিশানো স্বর্ণের বেসলেট চুরি হয়ে যায়। এ ঘটনায় আবরারা বেগম (৭০) বাদী হয়ে চুরির অভিযোগে মামলা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই বাবলু কুমার পাল, এসআই মো. মোমিনুল হাসান, এএসআই অনুপ কুমার বিশ্বাসের নেতৃত্বে অভিযানে আসামিদের কাছ থেকে নগদ ১ লাখ ৫ হাজার টাকা, ৭০০ ইউএস ডলার, ১৫টি ডায়মন্ডের হাতের রিং, ৪ জোড়া ডায়মন্ডের কানের দুল, ১টি ডায়মন্ডের নাকের নথ, ১টি স্বর্ণের গলার চেন, ১টি ডায়মন্ডের ব্রেসলেট, ১টি ডায়মন্ডের চুলের ক্লিপ উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য যে, ধৃত ১নং আসামি সিএমপি’র কোতোয়ালী থানায় চুরির অপরাধে ২ বার, ছিনতাই ও নারী নির্যাতন করার অপরাধে ২ বারসহ মোট ৪ বার গ্রেফতার হয়। এছাড়াও ধৃত ৩নং আসামি সিএমপি’র চকবাজার থানায় ডাকাতির উদ্দেশ্যে সমবেত হয়ে আগ্নেয়াস্ত্র নিজ হেফাজতে রাখার অপরাধে ১ বার গ্রেফতার হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্রসহ ২টি মামলা রয়েছে।

এমকে

Advertisement

CTG NEWS