মণ্ডপে কোরআন. সেই ইকবাল কুমিল্লার আদালতে

160
 নিজস্ব প্রতিবেদক |  শনিবার, অক্টোবর ২৩, ২০২১ |  ১২:৪০ অপরাহ্ণ
ইকবালের ৭ দিনের রিমান্ড
ইকবাল কুমিল্লার আদালতে
       
Advertisement

পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ইকবাল হোসেনকে কুমিল্লার আদালতে তোলা হয়েছে। কোতোয়ালি মডেল থানায় দায়ের করা কোরআন অবমাননার মামলায় ইকবাল হোসেনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

আজ ২৩ অক্টোবর, শনিবার বেলা ১২টায় কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মিথিলা জাহান নিপার আদালতে তাকে তোলা হয়। ইকবাল কুমিল্লা নগরীর ১৭ নম্বর ওয়ার্ড সুজানগর এলাকার মাছ বিক্রেতা নূর আলমের ছেলে।

Advertisement

এর আগে শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে কুমিল্লা পুলিশ লাইনে এনে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের সময় তিনি এ ঘটনা স্বীকার করেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একজন কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান জানান, নগরীর নানুয়ার দিঘিরপাড়ে দর্পন সংঘের অস্থায়ী পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার পর হনুমানের মূর্তি থেকে গদা সরিয়ে নেওয়ার কথাও স্বীকার করেছেন ইকবাল। তবে কার নির্দেশে তিনি এ কাজটি করেছেন, তা এখনো জানাননি।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টায় ইকবালকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর রাতেই তাকে কুমিল্লা পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শুক্রবার সকাল ৬টা ২০ মিনিটে কড়া নিরাপত্তায় তাকে নিয়ে কুমিল্লায় রওনা দেয় পুলিশ। শুক্রবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে কুমিল্লা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পুলিশ বহরের নেতৃত্ব দেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সোহান সরকার।

দায়িত্বশীল সুত্র জানায়, কক্সবাজার থেকে গ্রেপ্তার করে জেলা পুলিশ লাইনে নেওয়ার পর থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক ইউনিট।

পুলিশ জানায়, ইকবাল কুমিল্লা মহানগরীর ১৭নং ওয়ার্ডের দ্বিতীয় মুরাদপুর লস্করপুকুরপাড় এলাকার নূর আহম্মদ আলমের ছেলে। মণ্ডপের আশপাশসহ নগরীর বেশ কয়েকটি এলাকার সিসিটিভির ফুটেজ দেখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তার পরিচয় নিশ্চিত হয়।

এসসি

Advertisement

CTG NEWS