বান্দরবানে দফায় দফায় সংঘর্ষ , মন্দির- বাড়িঘর ভাংচুর

203
  |  বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৪, ২০২১ |  ৮:৩২ অপরাহ্ণ
বান্দরবান
       
Advertisement

বান্দরবানের লামা উপজেলায় ‘সর্বস্তরের তৌহিদী জনতা’ ব্যানারে প্রতিবাদ মিছিল করে এসে মন্দির ও হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা হয়েছে। দুপুর পর্যন্ত থেমে থেমে সংঘর্ষ হয়। দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১২-১৩ জন আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের পাশপাপাশি সেনা ও বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

আজ ১৪ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার সকালে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে একজন এসআইসহ তিন পুলিশ সদস্যও আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Advertisement

লামা থানার এসআই মো. জুম্মা জানান, কুমিল্লায় মন্দিরে কোরআন অবমাননা করা হয়েছে এমন অভিযোগ এনে সকালে ‘সর্বস্তরের তৌহিদী জনতা’ ব্যানারে প্রতিবাদ মিছিল করে এসে এই হামলা চালানো হয়।

লামা বাজার হরি মন্দির কমিটির সভাপতি প্রশান্ত ভট্টাচার্য বলেন, হরি মন্দিরটির প্রচুর ভাংচুর হয়েছে। কিন্তু আমাদের ছেলেদের প্রতিরোধে প্রতিমাগুলো রক্ষা পেয়েছে। বাজার এলাকায় হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেক ঘরবাড়ি এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানেও ভাংচুর হয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন।

লামা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেন বলেন, লামায় বাজারে একটি মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং ঘরবাড়ি ওপর হামলা পর হিন্দু সম্প্রদায়ে লোকজন চরম আতঙ্কে রয়েছে। ভয়ে কেউ ঘর থেকে বের হচ্ছে না। সংঘর্ষের পর পরিস্থিতি থমথমে রয়েছে।

জেলার পুলিশ সুপার জেরিন আক্তার বলেন, অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থতি এড়াতে প্রত্যেক মন্দিরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে পুলিশের পাশপাশি সেনা ও বিজিবি সদস্যও মোতায়েন রয়েছে।

এসসি

Advertisement

CTG NEWS