রাউজানে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে পণ্ড

190
 নিজস্ব প্রতিবেদক |  রবিবার, অক্টোবর ৩, ২০২১ |  ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ
রাউজানে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পণ্ড বাল্যবিয়ে, মিললো অর্থদন্ড
       
Advertisement

চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলায় বাল্যবিয়ের অভিযোগে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান পণ্ড করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। সেই সাথে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় বর ও কনের পরিবারকে ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

২অক্টোবর, শনিবার বিকাল ৫টায় সুলতানপুর পৌরসভার নন্দন পার্কে এ ঘটনা ঘটে। রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ এ অভিযান পরিচালনা করেন।

Advertisement

জানা যায়, পৌরসভার আলীখিল গ্রামের সিরাজের ছেলে ইকবালের সাথে পূর্ব গুজরার আধার মানিক গ্রামের সানা উল্লাহর মেয়ে সামিরা সুলতানার বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। বর-কনের খাবারের মুহূর্তে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ। তিনি কনের পরিবারকে মেয়ের ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার কাগজপত্র দেখাতে বললে তারা ব্যর্থ হন। পরে বাল্যবিয়ের অপরাধে বর পক্ষকে ২০ হাজার ও কনে পক্ষকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বিয়ের অনুষ্ঠান পণ্ড করে বর-কনে ও আত্মীয়-স্বজনকে অনুষ্ঠানস্থল থেকে বের করে দেয়া হয়।

রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাল্যবিয়ের কথা জানতে পেরে আমরা অনুষ্ঠানে আসি। কনের পরিবারকে মেয়ের কাগজপত্র (জন্মনিবন্ধন/এনআইডি) দেখাতে বলা হয়। অনেকক্ষণ অপেক্ষার পরও তারা দেখাতে পারেননি। পরে দুই পরিবারকে ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, কনে পক্ষ চট্টগ্রামের নোটারি পাবলিক কার্যালয়ের এফিডেভিট দেখায়। আমাদের কাছে যার গ্রহণ যোগ্যতা নেই।

এ প্রসঙ্গে  রাউজান থানার এসআই সাইমুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে ওই কিশোরীকে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না বলে খতিজার পিতা হজরত আলীর কাছ থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়।

পিএন/এনইউএস

Advertisement

CTG NEWS