টেকনাফে ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের উপর হামলার! ভোট কেন্দ্র স্থগিত

93
 মোঃ আরাফাত সানী, কক্সবাজার প্রতিনিধি |  মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২১ |  ১২:৫৫ অপরাহ্ণ
       
Advertisement

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফে প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচনে ৪ ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে সোমবার। রোদ,বৃষ্টি উপেক্ষা করে ভোটকেন্দ্র গুলোতে পুরুষ ভোটারের চেয়ে মহিলা ভোটারের উপস্থিতিই ছিল বেশি লক্ষ করা গেছে। ব্যালট ছিনতাই, জাল ভোট, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গাড়ি ও পুলিশের এর উপর হামলা ঘটনা’র মধ্য দিয়ে টেকনাফের ১নং হোয়াইক্যং ইউনিয়ন, ২নং হ্নীলা ইউনিয়ন , ৩নং টেকনাফ সদর ইউনিয়ন ও ৪নং সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। এ মধ্যে দুইটি হোয়াইক্যং দুইটি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে।

২০ সেপ্টেম্বর রাতে হ্নীলা, টেকনাফ সদর ও সাবরাংয়ের বেসরকারি ফলাফল প্রকাশ হয়েছে। উনচিপ্রাং ও লম্বাবিল দুইটি কেন্দ্রে ব্যালট ছিনতাইয়ের কারণে ভোট গ্রহণ স্থগিত রয়েছে। এর ফলে হোয়াইক্যং ইউপির ফলাফল প্রকাশ করা হয়নি।

Advertisement

গতরাত সারে ১১ টার দিকে উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে প্রাপ্ত ফলাফল মতে, ২নং হ্নীলা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী ১০২৬৬ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
৩নং টেকনাফ সদরে স্বতন্ত্র প্রার্থী জিয়াউর রহমান জিহাদ মোটর সাইকেল প্রতীকে ৯৪৬৮ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
৪ নং সাবরাং ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী নুর হোসেন দ্বিতীয় বারের মতো আনারস প্রতীকে ১৪৭৪৬ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

১নং হোয়াইক্যং ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারী (চশমা) ৯ কেন্দ্রে ভোট পেয়েছেন ৯৮২১। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীক প্রার্থী আজিজুল হকের প্রাপ্ত ভোট ৭৪৩৮।
হোয়াইক্যং ইউনিয়নে স্থগিত দুইটি কেন্দ্রে ছাড়া আওয়ামী লীগের প্রার্থী আজিজুল হকের চেয়ে অধ্যক্ষ মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারী ৯টি কেন্দ্রের ফলাফলে ২৩৮৩ ভোটে এগিয়ে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেদারুল ইসলাম বলেন, দু’য়েকটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়েছে। সাবরাং সহ কয়েকটি কেন্দ্রে জাল ভোট শনাক্ত করা হয়েছিল। জাল ভোট গুলো বাতিল করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, হ্নীলা, টেকনাফ সদর ও সাবরাং ইউনিয়নের বেসরকাররি ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। হোয়াইক্যং ইউপির উনচিপ্রাং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও লম্বাবিল এমদাদিয়া মাদরাসা কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে।

এদিকে হঠাৎ করে, কেন্দ্রে ব্যালট ছিনতাইয়ের এক পর্যায়ে প্রার্থীরা তাদের ভোটারদের নিয়ে ভোট কেন্দ্রে কর্মরত কর্মকর্তাগণের উপর হামলা চালাতে চেষ্টা করে৷ হামলার চেষ্টায় ব্যর্থ হলে ভোট কেন্দ্র ভাঙচুর করে৷ ওই সময় নির্বাচনে দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট টেকনাফের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ইরফানুল হক ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত ছিলেন৷
প্রার্থীরা ভোটারদের নিয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ইরফানুল হক এর গাড়ি ভাঙচুর করে৷ সেই সময় ভোট কেন্দ্রে দায়িত্বরত ডিএসবি পুলিশের এক সদস্যকে রাস্তায় নিয়ে গিয়ে টানা হিছড়া করে, এবং তার হাতে থাকা মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়৷ একপর্যায়ে প্রার্থীরা তাদের ভোটারদের আরো বেশি উত্তেজিত করে গাছ ফেলে রাস্তা বন্ধ করে৷ রাস্তা বন্ধ করে ফেলায় দীর্ঘ ১ ঘন্টা ধরে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়৷

দুপুর ১২ টায় ঘটনা চলাকালে ওই সময় কেন্দ্র পরিদর্শনে আসেন, নির্বাচনে দায়িত্বরত অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবু সুফিয়ান উক্ত কেন্দ্রের প্রার্থী ও ভোটারদের ডেকে দীর্ঘ ১ ঘন্টা যাবত উত্তেজিত হওয়ার কারণ শুনেন, এবং তাদের কে সান্তনা দিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক নিয়ে আসে৷ এবং প্রার্থীদের এবং ভোটারদের বিভিন্ন বক্তব্য শুনে ও পরিস্থিতি বুঝে কেন্দ্রগুলো স্থগিত করা হয়েছে বলে ঘোষণা দেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট৷

অপরদিকে, সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট গণনা নিয়ে মেম্বার প্রার্থী মো. আলী ও মো. আবদুল্লাহর মধ্যে বাদানুবাদ হয়। পরে এক পর্যায়ে তারা সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়েন। ভোট গণনা শেষে ব্যালট বাক্স ও সরঞ্জাম নিয়ে আসার সময়

এলাকায় মেম্বার প্রার্থী মো. আবদুল্লাহর অনুসারীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তার লোকজন লোহার রড, ইট-পাটকেল ছুড়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এতে উপপরিদর্শকসহ পুলিশের ১৩ সদস্য আহত হন। এছাড়া এপিবিএনের পুলিশ সদস্যসহ কয়েকজন স্থানীয় লোক আহত হয়েছেন।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, কেন্দ্র থেকে ব্যালট বাক্স ও সরঞ্জাম নিয়ে আসার সময় মেম্বার প্রার্থী আবদুল্লাহর লোকজন পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এতে ১৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পাশাপাশি হামলা কারীরা এপিবিএনের পুলিশ ব্যারাক লুট করার চেষ্টা চালিয়েছে। উক্ত হামলার ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। পাশাপাশি হোয়াইক্যংয়ে টেকনাফ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এরফানুল হক চৌধুরীর গাড়ির উপর হামলার মামলার প্রক্রিয়াও চলছে।

 

এমকে

Advertisement

CTG NEWS