অবসরে গিয়েও প্রধান শিক্ষক তিনি!

309
 আনোয়ারা প্রতিনিধি |  মঙ্গলবার, আগস্ট ৩১, ২০২১ |  ৮:৩০ অপরাহ্ণ
       

৬০ বছর বয়স পূর্ণ হওয়ায় গত মার্চে  কাগজে কলমে অবসরে যাওয়ার পরও বিধি মোতাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষককে দায়িত্ব বুঝিয়ে না দিয়ে প্রতিষ্ঠান প্রধান হিসেবে যাবতীয় কার্যাদি পালন করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে বাদল চন্দ্র দাস নামে অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। আর এমন ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রামের আনোয়ারা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে।

অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বাদল চন্দ্র দাস বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির মতামতেই দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানালেও বাস্তবে করোনাকালীন ওই বিদ্যালয়ের কোনো নিয়মিত কমিটির অস্থিত্বই নেই। তবে বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ফেরদৌস হোসেন।

Advertisement

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রবিধানমালা সূত্রে জানা যায়,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের যে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে তা শুধু মাত্র নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটির মাধ্যমে সম্পন্ন করা যাবে। আরেকটি প্রজ্ঞাপনে “ ঐতিহ্যবাহী ও মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে সরকারের আর্থিক সুবিধা না নেওয়ার শর্তে প্রতিষ্ঠান প্রধানের মেয়াদ ৬৫ বছর বয়স পর্যন্ত রাখা যেতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়। কিন্তু আনোয়ারা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বর্তমানে কোন নিয়মিত কমিটি নেই। এডহক কমিটি দিয়ে চলছে বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের এমপিও কপিতে বাদল চন্দ্র দাসের জন্ম তারিখ ৩০ জুন ১৯৬১ সাল,সেই মতে তাঁর বর্তমান বয়স ৬০ বছর ২ মাস। এর পরও কিভাবে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন এমন প্রশ্ন উপজেলার বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষকদের।

এ বিষয়ে বাদল চন্দ্র দাসের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কমিটির মতামতের ভিত্তিতেই আমি দায়িত্ব পালন করছি। অবসরের পরও এডহক কমিটি সময় বৃদ্ধি করতে পারে কিনা প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন- এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা।

এডহক কমিটির সদস্য দিদারুল ইসলাম চৌধুরী টিপু জানান, বিদ্যালয়ের বিভিন্ন সমস্যার কারণে এডহক কমিটি ২ বছরের জন্য বাদল চন্দ্র দাসকে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিয়েছে। তিনি সব দায়িত্ব পালন করছেন।

আনোয়ারা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ফেরদৌস হোসেন জানান, সরকারি বিধিমালার বাইরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। আনোয়ারা বালিকা বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বাদল চন্দ্র দাসকে চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগের বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে । কিভাবে দায়িত্বে রয়ে গেলেন বিষয়টি তিনি তদন্ত করে দেখবেন বলেও জানান তিনি।

এসএম

Advertisement

CTG NEWS