১৪৪ ধারার ঘটনায় ফটিকছড়িতে আ.লীগের এক গ্রুপের সংবাদ সম্মেলন

230
 ফটিকছড়ি (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি |  শুক্রবার, আগস্ট ২৭, ২০২১ |  ৮:০৯ অপরাহ্ণ
       

দু’গ্রুপের মুখোমুখি অবস্থানের প্রেক্ষিতে ১৪৪ ধারা জারি করে ফটিকছড়ি কলেজে শোকসভা করতে না দেওয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে আওয়ামীলীগের একটি গ্রুপ। আর এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরী ও ফটিকছড়ি পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ ইসমাইল হোসেনের ইন্ধন রয়েছে বলে অভিযোগ করে গ্রুপটি।

আজ শুক্রবার নাজিরহাট পৌরসভার একটি কমিউনিটি সেন্টারে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

Advertisement

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এম তৌহিদুল আলম বাবু, ফটিকছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এইচ.এম আবু তৈয়ব, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেবুন নাহার মুক্তা, ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহ আলম সিকদার, সহসভাপতি দিদারুল বশর চৌধুরী দুদু, চেয়ারম্যান এম আবদুল কাইয়ুম, এম শাহনেওয়াজ, মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল বশর চৌধুরী, ইসমাইল হোসেন, আব্বাস উদ্দিন বাদল। মহিলা নেত্রী রিফাত আক্তার নীশু, রহিমা মনসুর। সংবাদ সম্মেলনের পর সেখানে শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, অনুমতি নেওয়ার পরও পরবর্তীতে ছাত্রলীগ দিয়ে সভা আহবান করে ফটিকছড়ি কলেজে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের শোক সভা করতে না দেওয়া একটি পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র। আর এ ষড়যন্ত্রে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরী, ফটিকছড়ি পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ ইসমাইল হোসেনের ইন্ধন রয়েছে।

এদিকে চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে একই স্থানে বঙ্গবন্ধুর শোক সভার অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ ও ছাত্র লীগের দু গ্রুপের মুখমুখি অবস্থানের কারণে সংঘর্ষ এড়াতে ফটিকছড়ি পৌর সদর বাস স্ট্যান্ড ও কলেজ এলাকার ২ শত গজের মধ্যে গতকাল শুক্রবার সকাল ৬ টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পযন্তর্ ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মহিনুল হাসান।

ফটিকছড়ির ইউএনও মহিনুল হাসান বলেন, একই সময়ে দুটি সংগঠন ফটিকছড়ি কলেজ মাঠে সভা করার প্রস্তুতি নিয়েছে। তাই আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কলেজ প্রাঙ্গণ এবং বাস¯ট্যান্ডে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগ দু গ্রুপ একই সময় কলেজে সভা আহবান করায় আইন শৃঙ্খলা অবনতির আশংকায় এই ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

ফটিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত এক আদেশে বৃহস্পতিবার রাত একটার দিকে ১৪৪ ধারা জারির কথা জানানো হয়। আদেশে বলা হয়, কলেজ মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী পালনে দুটি সংগঠন একই তারিখ ও সময়ে অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়েছে। দুই পক্ষের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি এবং মানুষের জীবন ও সম্পদহানির আশঙ্কা রয়েছে। তাই পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত শুক্রবার ভোর ৬টা থেকে ফটিকছড়ি কলেজ ও বাস¯ট্যান্ড এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হলো।
১৪৪ ধারার আওতায় থাকা এলাকায় লাঠিসোঁটা, আগ্নেয়াস্ত্র বা অন্য কোনো ধরনের অবৈধ সরঞ্জাম আনা, বহন ও ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষেধ করা হয়েছে।

ফটিকছড়ি থানার ওসি রবিউল ইসলাম বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর শাহাদাতবার্ষিকী পালনের প্রস্তুতি নিয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশ এবং ফটিকছড়ি কলেজ ছাত্রলীগ। তাই কলেজ মাঠে ও বাসস্ট্যান্ডে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এসএম

 

 

Advertisement

CTG NEWS