মৌ-পিয়াসা অপকর্মের চট্টগ্রাম সমন্বয়ক রুবায়েত খান

6277
 নিজস্ব প্রতিবেদক |  রবিবার, আগস্ট ৮, ২০২১ |  ৬:০০ অপরাহ্ণ
পিয়াসা-মৌ
       
Advertisement

জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে বন্ধ করে দেওয়া গুলশানের লেকড গ্রামার স্কুলের পরিচালক হিসেবে পরিচয়দানকারী মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা সম্প্রতি মাদক ও ব্ল্যাকমেইলিংয়ের অভিযোগে গ্রেফতার হন । একই রাতে শ্যামলী থেকে গ্রেফতার করা হয় মরিয়ম আক্তার মৌকে। তাদের গ্রেফতারের পর উঠে আসে এসব অপকর্মে জড়িত চট্টগ্রামের রুবায়েত চক্রের নাম। পিয়াসা ও মৌ এর মদ ও অশ্লীল নাচের আসরের ছায়াসঙ্গী ছিলেন রুবায়েত। ব্যক্তিগতভাবে রুবায়েত গাড়ি ব্যবসায়ী হলেও তার বেশি সময় কাটে এসব অপকর্মে।

তথ্যানুসন্ধানে জানা গেছে, খুলশী থানাধীন ইস্ট প্রপার্টিজ আবাসিক এলাকার নিজ বাসা ও হোটেলে বিভিন্ন পার্টির নামে মদ ও ডিজে পার্টির আসর বসাতেন রুবায়েত খান। শুধু তাই নয়, পিয়াসা ও মৌ এর বাসাসহ ঢাকার নামীদামি হোটেল বারেও বসতো মদ ও অশ্লীল নাচের আসর। এসব কাজে রুবায়েতের সঙ্গী ছিলেন চট্টগ্রামের আরও ৪/৫জন ব্যবসায়ী ও ব্যাংকার।

Advertisement

সিটিজি নিউজের অনুসন্ধানে এমন তথ্য বেরিয়ে এসেছে। বিষয়টি স্বীকারও করেছেন রুবায়েত। তিনি বলেন, পিয়াসার সাথে আমাদের ফ্যামেলিয়ার সম্পর্ক। কিন্তু মৌকে আমি চিনি না। তবে পিয়াসা ও মৌ এর বাসায় তোলা রুবায়েতের একাধিক ছবি ছাড়াও পার্টির নামে অশ্লীল নাচের ভিডিও সংরক্ষিত রয়েছে এই প্রতিবেদকের কাছে।

মৌ ও পিয়াসার সাথে ফ্যামেলিয়ার সম্পর্কের কথা বললেও সিটিজি নিউজের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে ভিন্ন তথ্য, রুবায়েতের বাবা কিংবা পরিবারের কেউ চেনেন না পিয়াসা বা মৌকে। তবে অভিযোগ রয়েছে, পিয়াসার সাথে সম্পর্ক রয়েছে রুবায়েতের স্ত্রী তানজিনারও। স্ত্রী তানজিনাকে নিয়ে বিভিন্ন পার্টিতে যান রুবায়েত। সে পার্টিগুলোতেও চলতো নিয়মিত মদের আসর।

এছাড়াও তথ্য আছে-ডিজে পার্টিতে আসা এক মেয়ের সাথে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়েন রুবায়েত। এই নিয়ে কোনো এক পার্টিতে রুবায়েতের সাথে ঝগড়াও হয় স্ত্রী তানজিনার। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র জানায়, বিভিন্ন পার্টির নামে ফূর্তি করতেন রুবায়েত ও তার সঙ্গীরা।

সূত্র আরও জানায়, চলতি বছর জানুয়ারি মাসে চট্টগ্রামের বিলাসবহুল হোটেল রেডিসনের একটি আবাসিক কক্ষ থেকে রুবায়েতের বেরিয়ে আসার তথ্যচিত্র নিশ্চিত হওয়া গেলেও সে কক্ষে কার সাথে রুবায়েত ছিলেন তার নাম জানা সম্ভব হয়নি। তবে একাধিক সূত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, ওই সময় চট্টগ্রামেই ছিলেন মডেল ও অভিনেত্রী পিয়াসা। আর পিয়াসা ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে আসলে সাধারণত রাত্রি যাপন করতেন চট্টগ্রাম ক্লাব বা রেডিসনেই। এছাড়া ঢাকার গুলসান-২ এর বিলাসবহুল হোটেল আমির এ নিয়মিত যাতায়াত আছে রুবায়াতের। ওই হোটেলেও পিয়াসা-মৌ এর সাথে একান্ত সময় কাটাতেন তিনি।

চট্টগ্রামের আগ্রাবাদের বেস্ট ওয়েস্টার্ন হোটেলে সম্প্রতি একটি পার্টিতেও রুবায়েতের সাথে ছিলেন পিয়াসা,তানজিনা, সাকিব, জহির, ইশহাক, একটি বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা মোবারক আলীসহ রুবায়েতের আরও কয়েকজন ছেলে ও মেয়ে বন্ধু। সেখানেও আসর বসেছিল মদ ও অশ্লীল নৃত্যের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জহির উদ্দিন সিটিজি নিউজকে জানান, পিয়াসা আমার বন্ধু। রুবায়েতের মাধ্যমে পরিচয়।

একই কথা বলেছেন, সাকিব নামে আরেক অভিযুক্ত। তিনিও বলেন, রুবায়েতের মাধ্যমেই পিয়াসার সাথে পরিচয়। তবে পিয়াসা ও মৌ এর সাথে কোনো পার্টিতে যাননি বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে মন্তব্য নেওয়ার জন্য ব্যাংক কর্মকর্তা মো.আলীর ব্যক্তিগত মুঠোফোন (০১…..৪০২৫) নম্বরে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেন নি ।

এ বিষয়ে জানতে বেশ কয়েকবার কথা হয় পিয়াসার চট্টগ্রামের সমন্বয়ক রুবায়েত খানের সাথে। তিনি বলেন, পিয়াসা আমার দীর্ঘদিনের বন্ধু। পারিবারিক নানান অনুষ্ঠানে তার সাথে আমার দেখা হয়। সেসব পার্টিতে মদ সরবরাহ ও অশ্লীল নৃত্যের কথা অস্বীকার করেন তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিআইডি চট্টগ্রাম মেট্রো অঞ্চলের পুলিশ সুপার শাহ নেওয়াজ খালেদ সিটিজিনিউজকে বলেন, পিয়াসা-মৌসহ আরও কয়েকটি মামলা পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে সিআইডি সদর দপ্তর তদন্ত করছে। অপরাধ কর্মকাণ্ডের সাথে যারাই জড়িত তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

মাদক রাখা এবং উচ্চবিত্তদের নিজ বাসায় ডেকে এনে গোপনে ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইলিং করাসহ নানান অভিযোগ সম্প্রতি র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌ। বর্তমানে তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে তদন্তকারী সংস্থাগুলো। তদন্তকারী সংস্থাগুলোর দাবি, পিয়াসা ও মৌয়ের পেছনে থাকা প্রমোদ সঙ্গী ও আশ্রয়দাতাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। তাদের খঁুজে বের করতে পারলে তদন্তের কাজ অনেকটা সহজ হয়ে যাবে বলে জানান সংশ্লিষ্ট তদন্ত কর্মকতার্রা।

সূত্র জানায়, ব্লাকমেইলিং করার নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে পিয়াসা ও মৌকে। ইতোমধ্যে তাদের সাথে সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকজনের নাম এসেছে তদন্তকারী সংস্থার কাছে। এর মধ্যে রয়েছেন, ব্যবসায়ী,ব্যাংকারসহ বেশ কয়েকজন মডেল ও অভিনেত্রীর নাম।

জেইউএস/ এসএম

 

Advertisement

CTG NEWS