পটিয়ায় আলোচিত “অপহরণ” মামলার আসামি গ্রেফতার ২

219
 নিজস্ব প্রতিবেদক: |  রবিবার, আগস্ট ১, ২০২১ |  ৭:৪৪ অপরাহ্ণ
       

চট্টগ্রামের পটিয়ায় আলোচিত “অপহরণ” মামলার আসামি রাম তংচংগ (৪২) ও পরিমল তংচংগ(৩৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। 

শনিবার (৩১ জুলাই) বিকাল ৫ টার দিকে চন্দনাইশ থানার ধোপাছড়ি এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

Advertisement

গ্রেফতারকৃতরা হলো: রাম তৎচংগ বান্দরবানের রামু উপজেলার নোয়ামনি তংচংগের ছেলে ও পরিমল তংচংগ চন্দনাইশের লেমুজিরি বৈদ্য পাড়ার জুবুইল্য তংচংগের ছেলে।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী পিবিআই’র উপ পরির্শক (এসআই) পরিতোষ দাশ জানান, গত ২১ ফেব্রুয়ারি বাদি মোঃ মোজাম্মেল (৫৫) এর ভাই হেলপার মো.মোসলেম উদ্দিন ভাড়া চালিত ট্রাক পটিয়া থানার হাইদগাঁও ইউপির’ সাতগাউছিয়া দরবার শরীফের পাশে এটিআর গ্রুপ মুরগির ফার্মের সামনে রাস্তায় থামিয়ে গাড়িতে লাকড়ী লোড করার জন্য নিয়ে যায়।  এরপর মো.মোসলেমকে গাড়ীসহ অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা তংচংগ ও পরিমল তংচংগ। একই রাতে রাম তৎচংগ ভিকটিম মোসলেমের কাছে থাকা মোঃ মোজাম্মেলের মোবাইল নাম্বার থেকে কল দিয়ে মোঃ ফরহাদকে নগদ ৩,০০,০০০/— (তিন লক্ষ) টাকা নিয়ে পটিয়া থানাধীন হাইদগাঁও গ্রামের পূর্ব পাশে বুটবটিছড়া পাহাড়ে গিয়ে টাকা দিয়ে তার ভাইকে নিয়ে আসার জন্য বলে।

“টাকা না দিলে মোসলেমকে মারবে ও কাটবে এবং হত্যা করবে বলে ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে মোবাইল ফোনের লাইন কেটেও দেয় তারা”

তিনি আরও বলেন, আসামিদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে জানায় যে, ভিকটিম মো. মোসলেমকে গত ২১ ফেব্রায়ারি অপহরণ করে হত্যা করে তার লাশ পটিয়া থানার বুটবুটিছড়া পাহাড়ের নিচে চিনময় খালে গর্ত করে পুতে রাখে। পুলিশ আসামিদেরকে সাথে নিয়ে পটিয়া থানাধীন হাইদগাঁও হতে প্রায় ৬ কি.মি. গহীন অরণ্যের ভিতর চিনময় খালের ভিকটিমের লাশ উদ্ধার করতে যায় । তবে চিনময় খালে পানি বেশি ও পানিতে স্রোত বেশি থাকায় লাশটি উদ্ধার করা সম্ভব হয় নি। গ্রেফতার আসামিরা ঘটনার সাথে জড়িত বলে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সাক্ষ্য প্রমাণ পাওয়া গেছে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আসামিদেরকে রাম তংচংগ এবং পরিমল তংচংগ গ্রেফতার করে ১ আগস্ট বিজ্ঞ আদালতে ফৌজদারি আইনে ১৬৪ ধারায় ভিকটিম মোঃ মোসলেমকে অপহরণ এবং হত্যা করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেন। মামলাটির তদন্ত কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে ও জানান এসআই পরিতোষ দাশ।

এমকে

Advertisement

CTG NEWS