ইন্টার্ন কর্মবিরতিতে চিকিৎসক শূন্য চমেক হাসপাতাল !

226
 জালালউদ্দিন সাগর |  শনিবার, মে ১, ২০২১ |  ১:৪২ পূর্বাহ্ণ
       
Advertisement

ইন্টার্নি চিকিৎসকদের দলীয় অন্তকোন্দলের কারণে ইন্টার্ন চিকিৎসক বিহীন চলছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল। প্লেকার্ড হাতে তৃতীয় দিনের মতো কর্মবিরতি পালন করেছেন তারা। ফলে করোনার মধ্যে চরম ভোগান্তি পড়েছে চিকিৎসা নিতে আসা হাজারো রোগী।

দলীয় অভ্যন্তরীণ কোন্দলে রোগীদের ভোগান্তি বাড়াতে বিব্রত চমেকের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক চিকিৎসক এই প্রতিবেদককে জানান, খুব তুচ্ছ কারণে কর্মবিরতি পালন করছেন ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। করোনাকালীন মহামারির সময়ে তাদের কাছ থেকে এমন আচরণ আমরা প্রত্যাশা করিনি। তারা আরও বলেন, ইন্টার্ন চিকিৎসকরা হচ্ছে যেকোনো হাসপাতালের জন্য অক্সিজেনের মতো। অক্সিজের ছাড়া যেমন মানুষ বাঁচে না ঠিক তেমনি ইন্টার্ন ছাড়া এই হাসপাতালও অচল।

Advertisement

শুক্রবার রাতে চমেক হাসপাতালের বেশ কয়েকটি ওয়ার্ড ঘুরে দেখা যায় সেখানে দায়িত্ব পালন করছেন বিসিএস চিকিৎসকসহ, ট্রেনিংয়ে আসা সিনিয়র চিকিৎসকরা।

চমেকের ১২, ১৩ ও ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন বেশ কয়েকজন রোগীর সাথে কথা বলে জানা যায়, জরুরী বিভাগ থেকে ভর্তি হয়ে আসা অনেক রোগীই চিকিৎসা না পেয়ে ইতোমধ্যে হাসপাতাল ছেড়ে গেছেন।

২৭ এপ্রিল সন্ধ্যায় ও রাতে তুচ্ছ কারণে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের অনুসারী ছাত্রলীগের দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ছাড়াও বর্তমান সভাপতি ও কমিটির সহ-সভাপতি আহত হন।

এই ঘটনায় এক পক্ষ অপর পক্ষের বিরুদ্ধে মামলাও করে। তবুও কোনো পক্ষের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা ফিরে যাননি হাসপাতালে।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার থেকে কর্মবিরতি পালন করে আসছেন ইন্টার্ন ডক্টর্স এসোসিয়েশন। বহিরাগতরা চমেক ক্যাম্পাসে হামলা ও দুই সহকর্মীকে মারধর করেছে- এমন অভিযোগ এনে কর্মবিরতি পালন শুরু করে সংগঠনটি।

এছাড়া আজ ১ মে, শনিবার দোষীদের শাস্তির দাবিসহ নানান দাবিতে হাসপাতালে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন চমেক হাসপাতালের ইন্টার্ন ডর্ক্টস এসোসিয়েশন। শুক্রবার রাতে এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন এসোসিয়েশনের আহ্বায়ক ডা. ওসমান গণি।

কেএন

Advertisement

CTG NEWS